শিরোনাম
Home / অপরাধ / চবি শিক্ষককে মামলায় ফাঁসানোর ঘটনায় আনোয়ারা থানার ওসি প্রত্যাহার

চবি শিক্ষককে মামলায় ফাঁসানোর ঘটনায় আনোয়ারা থানার ওসি প্রত্যাহার

বিশেষ প্রতিনিধি : চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের (চবি) আন্তর্জাতিক সম্পর্ক বিভাগের সহকারী অধ্যাপক মো. তারেক চৌধুরীকে মিথ্যা মামলায় ফাঁসানোর অভিযোগ ওঠা আনোয়ারা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তাকে (ওসি) প্রত্যাহার করা হয়েছে।

বৃহস্পতিবার (২২ জুন) জেলা পুলিশ সুপার কার্যালয়ের এক অফিস আদেশে তাকে পুলিশ লাইন্সে সংযুক্ত করা হয়। জেলার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (ক্রাইম অ্যান্ড অপারেশন) সুদীপ্ত সরকার বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

এর আগে গত ২০ জুন এ ঘটনার নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়ে বিবৃতি দেয় চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক সমিতি। বিবৃতিতে বিষয়টি নিয়ে দ্রুত প্রতিকার চেয়ে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী ও পুলিশ মহাপরিদর্শকের (আইজিপি) হস্তক্ষেপ কামনা করাহয়।

শিক্ষক সমিতির বিবৃতিতে বলা হয়, চট্টগ্রামের আনোয়ারা উপজেলাধীন হাইলধর ইউনিয়নের খাসখামা এলাকার গ্রামে চবি শিক্ষক তারেকের বাড়িতে ২৭ মে তারিখ রাত ৮টার দিকে সন্ত্রাসী হামলার ঘটনা ঘটে। এসময় দুষ্কৃতকারীরা বর্বরোচিতভাবে তার বসত ঘরের আসবাবপত্র ভাঙচুর এবং মূল্যবান জিনিসপত্র ও স্বর্ণালংকার লুটপাট করে। উক্ত সন্ত্রাসী ও লাঠিয়াল বাহিনী মধ্যযুগীয় কায়দায় ঘরে অবস্থানরত তার পরিবারের নারী ও শিশু সদস্যসহ ৪ জনকে আহত করেছে৷

চবি শিক্ষকের বিরুদ্ধে মিথ্যা মামলা রজু করা হয়েছে উল্লেখ করে বিবৃতিতে বলা হয়, অত্যন্ত দুঃখজনক হলেও সত্য যে, আনোয়ারা থানার সংশ্লিষ্ট পুলিশ কর্মকর্তা হামলাকারীদের সঙ্গে যোগসাজশে তাদের পক্ষ হয়েই চবি শিক্ষক মো. তারেকসহ তার পরিবারের সদস্যদের বিরুদ্ধেই মিথ্যা মামলা রুজু করেছেন। যা ইতিমধ্যে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক সমিতির দৃষ্টিগোচর হয়েছে। অথচ ঘটনার সময় তারেক চৌধুরী চট্টগ্রাম শহরেই অবস্থান করছিলেন। এ ঘটনার পর থেকে ঘটনার শিকার হওয়া শিক্ষক ও তার পরিবার আতঙ্ক ও অনিশ্চয়তায় দিনাতিপাত করছেন।

বিবৃতিতে আরো বলা হয়, এ ঘটনার ৩ দিন পর, ৩০ মে হামলাকারীদের পক্ষাবলম্বন করে আনোয়ারা থানা পুলিশ ওই শিক্ষক এবং তার পরিবারের সদস্যদের বিরুদ্ধে দণ্ডবিধির ৩০৭, ৩২৫ ও ৩২৬ ধারার মতো জামিন অযোগ্য গুরুতর অপরাধে অভিযুক্ত করে মিথ্যা মামলা রুজু করে। এটিকে চবি শিক্ষক সমিতি উদ্দেশ্য প্রণোদিত ও আইনের শাসনের পরিপন্থী বলে মনে করছে। চবি শিক্ষক ও তার পরিবারকে এভাবে মিথ্যা মামলায় ফাঁসানোর ঘটনায় শিক্ষক সমিতি গভীর উদ্বেগ প্রকাশ ও নিন্দা জ্ঞাপন করছে।

বিবৃতিতে ওই শিক্ষক ও তার পরিবারের বিরুদ্ধে দায়ের করা মিথ্যা মামলা অনতিবিলম্বে প্রত্যাহার এবং শিক্ষকের বাড়িতে হওয়া সন্ত্রাসী হামলার দ্রুত শাস্তিমূলক ব্যবস্থা গ্রহণ করে শিক্ষক পরিবারের নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে সরকারের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী ও পুলিশ মহাপরিদর্শকের হস্তক্ষেপ কামনা করে শিক্ষক সমিতি।

Check Also

চাঁপাইনবাবগঞ্জে সামনে সেলাই মেশিন রেখে ছবি তুলে ফেরত নিলেন এলজিইডি প্রকৌশলী

ঘোষণা ডেস্ক : চাঁপাইনবাবগঞ্জের ভোলাহাট উপজেলার বাসিন্দা মোসা. মিম আক্তার (২৪)। সংসারে স্বচ্ছলতা ফেরাতে একটি …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *